জাতীয়জেলা সংবাদফিচার সংবাদ

পাবনায় দীর্ঘ দেড়যুগ পর শুরু হল কাজিরহাট-আরিচা নৌরুটে ফেরি সার্ভিস


এস এম আলম, ২৭ ফেব্রুয়ারিঃ দীর্ঘ প্রায় দেড়যুগ পর আজ থেকে আবারও শুরু হল কাজিরহাট-আরিচা নৌরুটে ফেরি সার্ভিস। উভয় পাড়ে পৃথক আনুষ্ঠানিকতায় এ ফেরি সার্ভিসের উদ্বোধন করেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।সকালে আরিচা ও কাজির হাটে পৃথক অনুষ্ঠানিকতায় এ সার্ভিসের উদ্বোধন করেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

বিআইডাব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক এর সভাপতিত্বে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সাংসদ এডভোকেট শামসুল হক টুকু এমপি, নাইমুর রহমান দুর্জয় এম পি, আহমেদ ফিরোজ কবির এম পি, বিআইডাব্লিউটিসির চেয়ারম্যান সৈয়দ তাজুল ইসলাম, পাবনা জেলা প্রশাসক কবির মাহমুদ, মানিক গঞ্জের জেলা প্রশাসক, পাবনা পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান বিপিএম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউর রহিম লাল সহ স্থানীয় বিশিষ্ট জনেরা। বিআইডাব্লিউটিসি কতৃপক্ষ, প্রাথমিক ভাবে এ রুটে প্রতিদিন ৪টি রো রো ফেরি চলবে।

চাহিদার উপর ভিত্তি করে পরবর্তীতে বাড়ানো হবে ফেরির সংখ্যা।এখানে ফেরি সার্ভিস চালুর ফলে বঙ্গবন্ধু সেতুর উপর চাপ কমার পাশপাশি ঢাকার সাথে পাবনা এবং উত্তরবঙ্গের ১০ টি জেলার দুরুত্ব কমবে প্রায় ৭৬ কিলোমিটার। সাশ্রয় হবে সময় এবং জ্বালানী।কৃষিপন্য বিপনন এবং ব্যবসা বানিজ্যের ব্যাপক উন্নতি হবে বলেও ধারনা করা হচ্ছে।

এতোদিন ধরে পাবনা, নাটোর, রাজশাহী, চাঁপাইনবানগঞ্জসহ উত্তরাঞ্চলের ১৬ জেলার মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজিরহাট থেকে স্পিডবোট ও ইঞ্জিন চালিত শ্যালো নৌকায় আরিচা হয়ে ঢাকা যাতায়াত করছেন। বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে সড়কপথে ঢাকা পৌঁছাতে যেখানে ৮ ঘন্টা পর্যন্ত সময় লাগছে। সেখানে নদীপথে মাত্র ৪/৪ ঘন্টায় গন্তব্যে পৌঁছানো সম্ভব হচ্ছে। ফেরিতে এ পথ পাড়ি দেয়া যাবে এক থেকে দেড় ঘণ্টায় বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক গণমাধ্যমকে জানান, পাবনাসহ আশপাশের জেলাগুলোর বিভিন্ন পরিবহন খুব সল্প সময়ে যাতায়াতের জন্য ও বঙ্গবন্ধু নেতুর উপরে চাপ কমিয়ে আনার লক্ষে নৌ-পথকে গুরত্ব দিয়ে চালু করা হলো এই ফেরি চলাচল ।

পাবনায় কাজিরহাট-আরিচা নৌরুটে ফেরি সার্ভিস উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিআইডাব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক কে ক্রেস্ট প্রদান করছেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close